January 17, 2021, 4:07 pm


বিশেষ প্রতিবেদক

Published:
2020-12-04 10:56:42 BdST

নিক্সন চৌধুরী : খলনায়ক থেকে নায়ক


রাজনীতিতে তার আগমন যেমন অকস্মাৎ। তেমনি তার রাজনৈতিক ইমেজও বিতর্কিত। প্রতিপক্ষকে তীব্র আক্রমণ, প্রশাসনকে গালাগালি, শালীনতার গণ্ডি ছেড়ে কথা-বার্তা বলার জন্যই আলোচিত ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি এবং সদ্য যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়া নিক্সন চৌধুরী। 

কদিন আগেই জেলা প্রশাসক এবং ইউএনওর সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়ে ছিলেন। নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন এবং নির্বাচনী কাজে কর্মকর্তাদের বাধা দেয়ার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করে নির্বাচন কমিশন। হাইকোট থেকে জামিন নেন তরুণ এই এমপি। এরপর যখন তাকে যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য করা হয় তখন অনেকে চমকে উঠেছিলেন।

ফরিদপুরে আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লাহর সাথে তার বিরোধ এখন জাতীয় ইস্যু। সেরকম একটি সময়ে, নিক্সন চৌধুরীকে যুবলীগের প্রেসিডিয়ামে অন্তভুক্তি কতটা যুক্তি সংগত হলো, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল।

কিন্তু, ধর্মান্ধ মৌলবাদীরা যখন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে নৈরাজ্য এবং অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছিলো, ঠিক তখনই আওয়ামী লীগে যারা জ্বলে উঠলেন তাদের মধ্যে নিক্সন চৌধুরী অন্যতম।

নিক্সন চৌধুরী সেই ভাষায় কথা বললেন যে ভাষা ঐ ধর্মান্ধ, মৌলবাদীদের প্রাপ্য। এদের সামনে বুক পিটিয়ে দাড়াতে হয়, চ্যালেঞ্জ করতে হয়। নিক্সন চৌধুরী সেই ভাষায় কথা বললেন।

অনেকেই মনে করেন, দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকায় আওয়ামী লীগের সংগঠন দূর্বল হয়ে পড়েছে। কর্মীরা এখন রাস্তায় নামে না। নেতাদের উপর কর্মীদের আস্থা নেই। রাজপথে থাকার মতো নেতা নেই। কিন্তু ভাস্কর্য ইস্যুতে নিক্সন বুঝিয়ে দিলেন, তিনি রাজনীতিতে থাকতে এসেছেন।

নিক্সনের জনপ্রিয়তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। কেবল ফরিদপুরে নয়, সারাদেশে তরুণদের মধ্যে তাকে নিয়ে আগ্রহ আছে। তার বিপুল সংখ্যক কর্মী এবং অনুসারীও আছে। আর একারণেই তিনি জাফরউল্লাহর মতো হেভিওয়েট প্রার্থীকে দু’বার পরাজিত করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েও।

এতোদিন তাকে মনে করা হতো খলনায়ক। কিন্তু মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের শুরুতেই তিনি জানিয়ে দিলেন, কেন তাকে আওয়ামী লীগ সভাপতি যুবলীগের প্রেসিডিয়ামে জায়গা দিয়েছে।

নিক্সন চৌধুরী, এখন প্রমাণ করা শুরু করছেন যে তিনি খলনায়ক না রাজনীতির নায়ক।

 

Unauthorized use or reproduction of The Finance Today content for commercial purposes is strictly prohibited.


Popular Article from FT বাংলা