July 20, 2024, 12:59 am


অনলাইন ডেস্ক:

Published:
2024-06-11 16:41:45 BdST

ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন ও রাজধানীর পশুর হাটের নজরদারি করছে পুলিশ


আর চারদিন পেরোলেই মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা। ঈদকে কেন্দ্র করে নাড়ির টানে এরই মধ্যে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছে মানুষ। ঢাকা দুই সিটিতে বসেছে ২২টি পশুর হাট। এসবের নিরাপত্তা দিতে এরই মধ্যে সক্রিয়ভাবে কাজ শুরু করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিমএমপি) সদস্যরা।
সম্প্রতি রাজধানী ও আশপাশের এলাকায় সুষ্ঠু ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা এবং ঘরমুখো মানুষের ঈদ যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেছে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ।
রাজধানীর পশুর হাটের সার্বিক নিরাপত্তা ও ঈদযাত্রার বিষয়ে জানতে চাইলে বুধবার মিরপুর ডিভিশনের এডিসি (প্রশাসন) মাসুক মিয়া জানান, গাবতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে ঢাকা বহির্গামী যাত্রীরা নির্বিঘ্নে দেশের নানা প্রান্তে যেতে যাতে কোনো ধরনের হয়রানির শিকার না হন, সে লক্ষ্যে মিরপুর ডিভিশনের পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করছে। ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে মিরপুরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।
তিনি বলেন, বিভিন্ন গরুর হাটে কোরবানির গরু বেচাকেনা নিরাপদ করতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে বিভিন্ন অংশীজনদের নিয়ে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে হোয়াটস অ্যাপে গ্রুপ খোলা হয়েছে। ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের সঙ্গেও মতবিনিময় করা হয়েছে।
এছাড়া যেসব নাগরিকরা গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন করতে যাবেন, তাদের করণীয় ও বর্জনীয় সংক্রান্ত লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। নাগরিকদের যেকোনো সমস্যায় লোকাল থানায় কিংবা ৯৯৯ জানানোর অনুরোধও করেন এডিসি মাসুক মিয়া।
তিনি বলেন, মিরপুর জোনে ৩ টি গরুর হাট আছে। গরুর হাটগুলোর মধ্যে একটি স্থায়ী, আর দুটি হচ্ছে অস্থায়ী। গাবতলী গরুর হাট স্থায়ী হাট। আর অস্থায়ী ২টির মধ্যে একটি হচ্ছে পল্লবী থানার ইস্টার্ন হাউজিং ওপেন স্পেস, অন্যটি হলো ভাষানটেক থানার ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড বাজার।
মাসুক মিয়া বলেন, প্রতিটি হাটে সার্বক্ষণিক সিসিটিভি ক্যামেরার পাশাপাশি পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। ছিনতাই ও চাঁদাবাজিসহ যেকোনো ধরনের অপকর্ম রোধ করতে কঠোর নজরদারি করছে পুলিশ।
এদিকে কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুকুল আলম জানান, পবিত্র ঈদুল আজহা খুব সন্নিকটে। এই ঈদে অনেক মানুষ ঢাকা ছাড়েন। তাই আমরা কাফরুল থানা-পুলিশ সবসময় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছি। আমরা বিভিন্ন স্থানে রাতের বেলা চেকপোস্ট করি, যাতে করে কেউ ছিনতাইয়ের কবলে না পড়েন।

Unauthorized use or reproduction of The Finance Today content for commercial purposes is strictly prohibited.


Popular Article from FT বাংলা